Breaking News

আফগানিস্তান ত্যাগের ‘কৌশল’ বাতলে দিলেন ট্রাম্প

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আফগানিস্তান ইস্যুতে বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে আক্রমণ করেই যাচ্ছেন। গতকাল সোমবার ট্রাম্প বলেছেন, আফগান ইস্যুতে বাইডেনের সবচেয়ে বড় ভুল হচ্ছে তিনি সামরিক কৌশলটিই বুঝতে ব্যর্থ হয়েছেন।

যথারীতি এবারও বাইডেনকে ‘প্রেসিডেন্ট’ সম্বোধন না করেই তাঁর সমালোচনার পাশাপাশি নিরাপদে যুক্তরাষ্ট্রের আফগানিস্তান ত্যাগ করার নিজস্ব সামরিক কৌশলের কথা জানিয়েছেন ট্রাম্প।

ট্রাম্পের সামরিক কৌশলটি হলো মার্কিন সেনারা দরজার বাইরে যাবে সবার শেষে, সবার আগে নয়। বেসামরিক লোকজন ও মালামাল বের করতে হবে প্রথমে। সবাই যখন বেরিয়ে যাবে, তখন সেনাবাহিনী বেরিয়ে আসবে।
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ট্রাম্প বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক যে কৌশল অনুযায়ী এখনো কাজ করা হচ্ছে না।

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ক্ষেত্রে অপরিকল্পিত উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করে আগে বাইডেনের পদত্যাগ দাবি করেছেন ট্রাম্প। পরে তিনি বলেন, বাইডেনকে জাতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে।

৩১ আগস্টের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সামরিক-বেসামরিক লোকজনকে নিরাপদে সরিয়ে আনার কাজ সম্পন্ন করার জন্য প্রচণ্ড চাপের মধ্যে রয়েছেন বাইডেন।

ইতিমধ্যে তালেবান জানিয়ে দিয়েছে, ৩১ আগস্টের মধ্যেই মার্কিনদের কাবুল ত্যাগ করতে হবে। এ সময়সীমা বর্ধিত করলে মার্কিনদের এর পরিণতি ভোগ করতে হবে।

স্থানীয় সময় আজ মঙ্গলবারের মধ্যে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে পরামর্শ দিয়েছে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর। কাবুলে অবস্থানরত প্রায় ৫ হাজার ৮০০ মার্কিন সেনা ও তাদের সঙ্গে থাকা সরঞ্জাম সরিয়ে আনার জন্য এ সময়সীমার মধ্যে সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরি বলে উল্লেখ করেছে প্রতিরক্ষা দপ্তর। সিএনএনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক-বেসামরিক লোকজনকে কাবুল থেকে নিরাপদে সরিয়ে আনার প্রয়াসের সঙ্গে মার্কিন বাহিনীকে সাহায্যকারী আফগানদের বিষয়টিও যুক্ত আছে। দেশত্যাগে ইচ্ছুক আফগানদের ৩১ আগস্টের মধ্যে নিরাপদে সরানো অসম্ভবই বলেই মনে করা হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে ৩১ আগস্টের পরের পরিস্থিতি কী হবে, তা নিয়ে আশঙ্কা কাজ করছে।

প্রেসিডেন্ট বাইডেন জানিয়েছেন, সময়সীমা বাড়ানোর জন্য তালেবানের সঙ্গে আলোচনা চলছে। তবে তিনি আশা করছেন, সময়সীমা বাড়াতে হবে না।

গতকাল মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস বলেছেন, আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার নিয়ে কোথায় ভুল হয়েছে, তা বিশ্লেষণের জন্য অনেক সময় পাওয়া যাবে। এখন আমেরিকার কাছে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার হলো কীভাবে লোকজনকে নিরাপদে কাবুল থেকে সরিয়ে আনা যায়।

মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, গতকালের আগের ২৪ ঘণ্টায় কাবুল থেকে মার্কিন বাহিনী ও মিত্রশক্তি ১৬ হাজারের বেশি লোককে নিরাপদে সরিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছে।

তবে ১৪ আগস্টের পর থেকে এ পর্যন্ত ঠিক কতজন মার্কিনকে কাবুল থেকে সরিয়ে আনা হয়েছে, তার কোনো হিসাব দেওয়া হচ্ছে না। এ ছাড়া কতজন মার্কিন এখনো সরিয়ে আনার অপেক্ষায় আছে, তারও কোনো হিসাব প্রকাশ করা হচ্ছে না।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় গতকাল বিকেল পর্যন্ত ৪ হাজার ২৯৩ জন মার্কিনকে আফগানিস্তান থেকে নিয়ে আসা হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন

About admin

Check Also

একমাত্র ছেলে আব্রামের ধর্ম নিয়ে যা বললেন অপু বিশ্বাস

অপু বিশ্বাস শাকিব খান-অপু বিশ্বাসের সন্তান আব্রাম খান জয়। শাকিবের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার পর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *